৮ম শ্রেণির ১৪ সপ্তাহের ইসলাম শিক্ষা অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান ২০২১


প্রিয় অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী বন্ধুরা তোমরা নিশ্চয় তেমাদের ৮ম শ্রেণির ১৪ সপ্তাহের ইসলাম শিক্ষা অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান ২০২১ এর অপেক্ষায় রয়েছো। হ্যা, আজ আমরা তোমাদের সেই কাঙ্খিত অষ্টম শ্রেনির ইসলাম ধর্ম এসাইনমেন্ট উত্তর প্রকাশ করলাম।

৮ম শ্রেণির ১৪ সপ্তাহের ইসলাম শিক্ষা অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান ২০২১

মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষার্থীদের মধ্যে তোমরা একটি শ্রেণির শিক্ষার্থী যাদের করোনাকালীন অ্যাসাইনমেন্ট কার্যক্রম চলমান রয়েছে। তোমাদের শিক্ষাকে চালিয়ে নিতে এই কার্যক্রম চালু করা হয়েছে। এতে তোমাদের কিছুটা হলেও উপকার হচ্ছে। তাই তোমরা হেলা ফেলা না করে অ্যাসাইনমেন্ট গুলো সুন্দর ও সঠিকভাবে করার চেষ্টা কর।

৮ম শ্রেণির ইসলাম শিক্ষা তোমাদের সকলের পছন্দের একটি বিষয়। এই বিষয়টির অ্যাসাইনমেন্ট লিখতে তোমাদের ভালো লাগে। এবং অন্য বিষয়ের তুলনায় এটি সহজ ও বটে।

অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা চলো তোমাদের ১৪ সপ্তাহের ইসলাম শিক্ষা ৮ম শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট প্রশ্নগুলো দেখে নেওয়া যাক। কি আছে তোমাদের এই চতুর্দশ সপ্তাহের ৮ম শ্রেণির এসাইনমেন্টে। তোমাদের প্রতি সাজেশন থাকবে তোমরা প্রশ্নগুলো মনোযোগ সহকারে পড়ে তারপর উত্তর লেখা শুরু করবে।

৮ম শ্রেণির ১৪ সপ্তাহের ইসলাম শিক্ষা অ্যাসাইনমেন্ট প্রশ্ন ২০২১

বিষয়ঃ ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা

অ্যাসাইনমেন্ট ক্রমঃ ৮ম শ্রেণির ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা অ্যাসাইনমেন্ট ৩

অধ্যায়ঃ আকলাক (৪র্থ অধ্যায়)

অ্যাসাইনমেন্ট বিষয়বস্তুঃ 

পাঠ-১ (আখলাকের প্রকার)
পাঠ-২ (ধৈর্য)
পাঠ-৩ (ভ্রাতৃতি)
পাঠ-৪ (নারীর মর্যাদা)
পাঠ-৫ (সমাজসেবা)

নির্ধারিত কাজঃ ”কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে আমার করণীয়”

সংকেত:

  • ১। কুরআন ও হাদিসের আলোকে সমাজ সেবার গুরুতৃ
  • ২। কোভিড পরিস্থিতিতে যে সব সহায়তা লাগবে তার তালিকা
  • ৩। কীভাবে অর্থ সংগ্রহ করা যেতে পারে তার পরিকল্পনা
  • ৪ । সংগৃহিত অর্থ উক্ত জনগোষ্ঠীর সহায়তার জন্য কীভাবে ব্যয় করবে তার নির্দেশনা

নির্দেশনাঃ 

  • পাঠ্যপুস্তক থেকে উক্ত বিষয়ে ধারণা নেয়া যেতে পারে
  • শিক্ষার্থী সর্বোচ্চ ২০০ শন্দ এবং উপযুক কুরআন হাদিসের দলিলসহ উপস্থাপন করতে হবে
  • প্রয়োজনে অভিভাবকের সহযোগিতা নেয়া যেতে পারে
  • মোবাইল বা যে কোন ভার্চুয়াল মিডিয়ার মাধামে বিষয় শিক্ষকের সাথে যোগাযোগ করা যেতে পারে
  • ইন্টারনেটের সাহায্য নেয়া ষেতে পারে
  • আযাসাইনমেন্ট স্বহস্তে লিখতে হবে।

মূল্যায়ন রুব্রিক্সঃ 

  • নিচের নির্ণায়কের ভিজ্তিতে শিক্ষক মূল্যায়ন করবেন এবং রেকর্ড সংরক্ষণ করবেন
  • প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রে ফিভব্যাক প্রদালের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের শিখন নিশ্চিত করবেন

অতি উত্তম:
১। কুরআন ও হাদিসের উদ্ধৃতি আরবিতে লিখা ।
২। ধারাবাহিকতা বজায় থাকা
৩। পর্যায় উপলব্ধি করে যৌক্তিক বিশ্লেষণ
৪ । লেখায় নিজস্বতা ও সৃজনলীলতা
৫ । বানান ও বাক্য গঠনে সঠিকতা
উত্তম:
১। কুরআন ও হাদিসের উদ্ধৃতির অনুবাদ
২। আংশিক ধারাবাহিকতা বজায় থাকা
৩। পর্যায় উপলব্ধি করে আংশিক যৌন্তিক বিশ্লেষণ
৪ । লেখায় আংশিকমাত্রায় নিজন্বতা ও সৃজনশীলতা
৫ । বানান ও বাক্য গঠনে সঠিকতা
ভালো:
১। কুরআন অথবা হাদিসের উদ্ধৃতির অনুবাদ
২। কিছুটা ধারাবাহিকতা বজায় থাকা
৩। পর্যায় উপলব্ধি করে আংশিক বিশ্লেষণ
৪ । লেখায় আংশিকমাত্রায় নিজন্বতা ও সৃজনশীলতা
৫ । বানান ও বাক্য গঠনে সঠিকতা
অগ্রগতি প্রয়োজন:
১। কুরআন অথবা হাদিসের উদ্ধৃতির অনুবাদের
অভাব
২। ধারাবাহিকতা বজায় না থাকা
৩। পর্যায় উপলব্ধি করে বিশ্লেষণ না করা
৪ । লেখায় নিজস্বতা ও সৃজনশীলতা না থাকা
৫ । বানান ও বাক্য গঠনে সঠিকতা না থাকা
৮ম শ্রেণির ১৪ সপ্তাহের ইসলাম শিক্ষা অ্যাসাইনমেন্ট প্রশ্ন ২০২১


শিক্ষার্থী বন্ধুরা তোমরা নিশ্চয় উপরের ৮ম শ্রেনির ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা ১৪ সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট প্রশ্নটি পড়েছো। এবং তোমরা জেনে গেছো যে তোমাদের কী করতে হবে। তোমাদের সুবিধার্তে আমরা তোমাদের জন্য নিচে একটি নমুনা উত্তর দিবো। তবে তোমরা সেটা হুবুহু কপি না করে নিজের মত করে লিখবে। তবে যে কোরআন ও হাদিসের দলিলগুলো দেওয়া থাকবে সেগুলো হুবুহু লিখবে। চলো তাহলে দেখে নেওয়া যাক তোমাদের চতুর্দশ সপ্তাহের ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা এসাইনমেন্ট উত্তর।

১৪ সপ্তাহের ৮ম শ্রেণির ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা অ্যাসাইনমেন্ট সমাধান ২০২১


এসাইনমেন্ট শুরু

কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে আমার করণীয়”

ভুমিকাঃ সমাজ সেবা একটি সামাজিক শব্দ হলেও মূলক এটি ইসলামের একটি শিক্ষা। আল্লাহ তার কুরআনে সমাজসেবা সম্পর্কে অনেক কথা বলেছেন এবং রাসুল তার জীবনে সমাজসেবার উৎকৃষ্ট দৃষ্টান্ত রেখে গেছেন।

১। কুরআন হাদিসের আলোকে সমাজ সেবার গুরুত্বঃ 

মানুষ আল্লাহর সেরা সৃষ্টি অর্থা আশরাফুল মাখলুকাত। আর এই মানুষের সেবা করা অর্থাৎ সমাজের সেবা ইসলামের একটি শিক্ষা। আল্লাহ শুধু মানুষকে নিজের অর্থ সম্পদ সংগ্রহের জন্য পৃথীবিতে পাঠাননি। তিনি মানুষকে পৃথীবিতে পাঠিয়েছেন আল্লাহর ইবাদতের জন্য আর এই ইবাদত শুধু নামাজ পড়া আর রোজা করা নয়।

আল্লাহ তায়ালা সূরা বাকারার ২৬১ নম্বর আয়াতে বলেন, ‘যারা আল্লাহর পথে তাদের সম্পদ ব্যয় করে, তাদের উপমা একটি বীজের মতো, যা উৎপন্ন করল সাতটি শিষ, প্রতিটি শিষে রয়েছে ১০০ দানা। আর আল্লাহ যাকে চান, তার জন্য বাড়িয়ে দেন। আর আল্লাহ প্রাচুর্যময়, সর্বজ্ঞ।’

তাই আমাদের উপার্জিত অর্থ মানব কল্যানে ব্যয় করতে হবে এবং সমাজের সেবা করতে হবে। তাহলেই আমরা জান্নাত লাভ করবো।

হজরত আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি কোনো মুমিনের পার্থিব কষ্টসমূহ থেকে কোনো কষ্ট দূর করবে কিয়ামতের কষ্টসমূহ থেকে আল্লাহ তার একটি কষ্ট দূর করবেন। যে ব্যক্তি কোনো অভাবীকে দুনিয়াতে ছাড় দেবে আল্লাহ তাকে দুনিয়া ও আখিরাতে ছাড় দেবেন। যে ব্যক্তি কোনো মুমিনের দোষ গোপন রাখবে, আল্লাহ দুনিয়া ও আখিরাতে তার দোষ গোপন রাখবেন। আর আল্লাহ বান্দার সাহায্যে থাকেন যতক্ষণ সে তার ভাইয়ের সাহায্য করে যায়।’ (মুসলিম, আবু দাউদ, তিরমিজি)।

২। কোভিড পরিস্থিতিতে যে সব সহায়তা লাগবে তার তালিকাঃ 

কোভিড-১৯ পৃথীবিতে যে মহামারি আকার ধারণ করেছে তার ছড়িয়ে পড়া কমাতে বিভিন্ন দেশের সরকার দেশে লকডাউন চালু করেছে। বাংলাদেশে একদি দরিদ্র দেশ এখানে অধিকাংশ মানুষ দরিদ্র সীমার নিচে বসবাস করে তাই এই কোভিড পরিস্থিতে তাদের অনেক ধরনের সহায়তা প্রয়োজন। নিচে কোভিড পরিস্থিতিতে কিছু সহায়তার তালিকা দেওয়া হলো।

  • মাস্ক বিতরণ করে গরিবদের সাহায্য করতে হবে।
  • যারা কোভিডে আক্রান্ত হবে তাদের চিকিৎসার ব্যবস্তা করতে হবে।
  • লকডাউনে যাদের বাসায় খাবার নাই তাদের বাসায় খাবার পৌছে দিতে হবে।
  • যাদের বাসস্থান জরাজির্ণ তাদের ভালো বাসস্থানের ব্যবস্থা করা যেতে পারে।
  • দৈনন্দিন জীবনে ব্যবহৃত জিনিসপত্র কিনে দিয়ে সাহায্য করতে হবে।
  • শিক্ষার্থীদের শিখন সামগ্রী দিয়ে সাহায্য করতে হবে।

পরিশেষে বলা যায়, যে যেভাবে পারবে তার আশেপাশের মানুষদের দুঃখ কষ্ট দেখে সেই দুঃখ কষ্ট দুর করার ব্যবস্থা করবে যার যতটুকু সামর্থে কুলায়।

৩। কিভাবে অর্থ সংগ্রহ করা যেতে পারে তার পরিকল্পনাঃ

গরিব দুখিদের সাহায্যের জন্য ব্যক্তিপর্যায়ে সাহায্যের পাশাপাশি সাংগঠনিক ভাবে সাহায্য করলে অনেক মানুষকে একসাথে সাহায্য করা যায়। আর এর জন্য প্রয়োজন মেটা অর্থ। সেই মোটা অর্থ সংগ্রহের জন্য অনেক উপায় অবলম্বন করা যেতে পারে। নিচে কিভাবে অর্থ সংগ্রহ করা যেতে পারে তার একটি পরিকল্পনা দেওয়া হলো।

  • শহর, গ্রাম বা মহল্লার মানুষদের মধ্যে মাসিক বা সাপ্তাহিক চাঁদার মাধ্যমে।
  • সমাজের বিত্তবানদের কাছ থেকে সাহয্য একত্রিত করে।
  • প্রবাশি শ্রমিকদের কাছ থেকে অর্থ সংগ্রহ করা যেতে পারে।
  • সরকারি অথবা বেসরকারি সংগঠনের কাছ থেকে সাহায্য নিয়ে।
  • মেম্বার বা চেয়ারমেনের কাছ থেকে অর্থ সংগ্রহ করা যেতে পারে।

৪। সংগৃহিত অর্থ উক্ত জনগোষ্ঠীর সহায়তার জন্য কীভাবে ব্যয় করবে তার নির্দেশনাঃ

কোনো কাজের জন্য সংগ্রহিত অর্থ কিভাবে ব্যয় করা হবে তার পরিকল্পনা না করলে সেই অর্থ অপাত্রে দান হতে পারে। তাই সমাজের সঠিক গরিব ও দুস্থ মানুষদের চিহ্নিত করে তাদের অর্থ দানের জন্য নিম্নরুপ পরিকল্পনা করা যেতে পারে।

  • এলাকার গরিব বা দুস্থ ব্যক্তিদের একটি তালিকা তৈরি করা।
  • মোট অর্থকে এলাকার গরিব দুস্থদের সংখ্যায় ভাগ করে নেওয়া।
  • কোণ ব্যক্তিকে কি দিয়ে সাহয্য করতে হবে তার বিবরণ লিখে রাখা।
  • সঠিক ও যোগ্য ্ব্যক্তিদের দিয়ে বিতরণ করা।

উপরের নির্দেশনা গুলোর সারকথা হলো অর্থগুলো এমন ভাবে বিতরণ বা ব্যয় করা যেন তা সঠিক মানুষের কাছে সঠিক উপায়ে পৌছায়।


এসাইনমেন্ট শেষ

আরো পড়ুনঃ

প্রিয় অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী বন্ধুরা তোমরা নিশ্চয় তোমাদের ১৪ সপ্তাহের ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা অ্যাসাইনমেন্টটি লিখেছো। তোমাদের আরো সাহায্যের প্রয়োজন হলে তোমরা এই পোস্টের নিচে কমেন্ট করতে পারো। আজকের এই ইসলাম ধর্ম ১৪ সপ্তাহের এসাইনমেন্টটি কেমন লাগলো সেটা জানাতে ভুলোনা যেন। তোমাদের ১৫ সপ্তাহের বিজ্ঞান, কর্ম ও জীবনমুখী অ্যাসাইনমেন্টগুলে দ্রুত পেতে আমাদের সাইটটির ঠিকানা লিখে রাখতে পারো।

৮ম শ্রেণির ইসলাম ‍ও নৈতিক শিক্ষা অ্যাসাইনমেন্ট ২০২১

আমাদের সাথে থাকতে আমাদের ফেজবুক পেজে লাইক দিয়ে রাখো। অথবা আমাদের এসাইনমেন্ট ফেজবুক গ্রুপে যুক্ত হতে পারো। এসাইনমেন্টগুলো ভিডিও আকারে পেতে আমাদের ইউটিউব চ্যনেলটি সাবসক্রাইব কর।


আমাদের ইউটিউব লিংক
https://www.youtube.com/channel/UCea_DqYt9NegZgE5A-mdIag
ফেজবুক পেজ (সমস্যা ও সমাধান)
https://web.facebook.com/shomadhan.net
assignment all class (6-9)📝📝
https://web.facebook.com/groups/287269229272391

সতর্কতাঃ  সবার উদ্দেশ্যে বলতে চাই আজকের ৮ম শ্রেণীর অ্যাসাইনমেন্ট ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা  সমাধান কেবল মাত্র একটি নমুনা উত্তর। তাই তোমরা হুবুহু কপি না করে এটা থেকে ধারণা নিয়ে নিজে লেখার চেষ্টা কর। হুবুহু লিখলে খাতা বাতিল হওয়ার সম্ভবনা থেকে যায়। তাই তোমরা নিজে বানিয়ে বানিয়ে লিখবে। তবে কুরআন ও হাদিসের দলিলগুলি কপি করতে পারো তাতে কোনো সমস্যা নায়।

1 মন্তব্যসমূহ

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

নবীনতর পূর্বতন